শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৫:০৪ অপরাহ্ন

রাজশাহীতে নার্সকে হাতুড়ি দিয়ে হত্যা চেষ্টা

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২
155840_bangladesh_pratidin_307257639_499305261621739_2283899221404390871_n

রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত অবস্থায় একজন সিনিয়র স্টাফ নার্সকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা চেষ্টা করেছে এক দুর্বৃত্ত। গুরুতর আহতের নাম শিলা প্রামাণিক (৩০)। তিনি উপজেলার পোল্লাকুড়ি গ্রামের রঘুনাথ প্রামাণিকের মেয়ে। তিনি মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নার্স শিলা নতুন বিল্ডিংয়ের দোতালায় ভায়া রুমে গাইনী পরীক্ষার জন্য কাজ করছিলেন। হঠাৎ পেছন থেকে একজন মাস্ক পরা যুবক নার্স শিলাকে উপর্যুপরি হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে। নার্স শিলা চিৎকার করে সহযোগীদের ডাকতে থাকেন। এরই মধ্যে প্রায় ৫/৭ মিনিট দু’জনের মধ্য ধ্বস্তাধস্তি হয়। চিৎকার শুনে এগিয়ে সহযোগীরা এগিয়ে আসলে হামলাকারী যুবক তার হাতে থাকা হাতুড়িটি ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে মোহনপুর থানা পুলিশের এসআই ধীমান চন্দ্র বর্মণ ঘটনাস্থলে যান। তিনি জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত যুবককে চিহ্নিত করতে কাজ চলছে। সিনিয়র স্টাফ নার্স শিলা বলেন, এ হাসপাতালে চাকরি করা অবস্থায় সেবা দিতে গিয়ে কারো সাথে খারাপ ব্যবহার করেননি। কে, কী কারণে তার উপর হামলা করেছে সে বিষয়ে তিনি কিছুই বলতে পারেননি।

 

ঘটনা অনুসন্ধান করতে গিয়ে প্রত্যক্ষদর্শী ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত কর্মচারীদের মাধ্যমে জানা গেছে, মাস্ক পরিহিত এক যুবক স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পশ্চিম পাশের রাস্তা দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করে দোতালায় ভায়া রুমে মাথা নিচু করে কাজ করার সময় নার্স শিলার উপর হাতুড়ি দিয়ে হামলা চালায়। হামলা শেষে বের হওয়ার সময় হামলাকারী যুবককে চিনতে পারে স্থানীয়রা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে মেডিকেলে কর্মরত একজন ও এলাকাবাসীদের মধ্যে দু’জন বলেন, সে সইপাড়া গ্রামের মুদি দোকানদার রিয়াজের বড়ো ছেলে মেহেদি হাসান (৩০)।

মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আরিফুল কবির বলেন, সরকারি কর্মচারী শিলা প্রামাণিকের উপর যে হামলা হয়েছে তা হাসপাতালের জন্য বিশাল হুমকি স্বরূপ। সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারী ও সরকারি সম্পদ রক্ষার জন্য মেডিকেলের পক্ষ থেকে আনসার চেয়ে আবেদন করা হয়েছে। আহত শিলাকে সিটি স্ক্যান করার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

রাজশাহী জেলা সিভিল সার্জন ডা. আবু সাইদ মোহাম্মদ ফারুক বলেন, মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নার্সের উপর হামলার ঘটনায় হামলাকারীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশ সুপারকে বলা হয়েছে। ঘটনা তদন্তের জন্য টিএসও কে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মোহনপুর থানা কর্মকর্তা ওসি মোহা. তৌহিদুল ইসলাম বলেন, নার্সের উপর হামলার ঘটনায় অফিসার পাঠানো হয়েছে। টিএসও অফিসে আসলে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে হামলাকারীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর