শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:৩৮ অপরাহ্ন

আল্লাহ যা করেছেন মঙ্গলের জন্যই করেছেন: সুবাহ

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৬ জুলাই, ২০২২
Soba20191125082615

যৌতুক চেয়ে নির্যাতনের মামলার আসামি কণ্ঠশিল্পী ইলিয়াস হোসাইনের সঙ্গে আদালতের মাধ্যমে ১০ লাখ টাকার বিনিময়ে মামলার নিষ্পত্তি করেছেন অভিনেত্রী শাহ হুমায়রা হোসেন

সোমবার ঢাকার সাত নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক সাবেরা সুলতানা খানমের আদালতে সাক্ষ্য দিতে এসে এ কথা জানান সুবাহ।

সোমবার রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সুবাহ একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েছেন, যেখানে তিনি মহান সৃষ্টিকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

সুবাহর ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো—

৫- মাস ধরে ইলিয়াসের পরিবার আমার পরিবার নিয়ে মীমাংসার জন্য আমাকে বলা হচ্ছিল, তাই আমি তাদের সঙ্গে এখন মীমাংসা হয়ে গেছি এবং কেস তুলে নিয়েছি সেও তাই করেছে।

আর যা হয়েছে দুজনেরই জীবনের ভালোর জন্যই হয়েছে। আর দুই পরিবার এবং গণমান্য ব্যক্তিদের পরামর্শ ও অনুরোধে।

এখন দেনমোহরের টাকা আর কিছু ক্ষতিপূরণ দিয়ে সাধু হওয়ার চেষ্টায় আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করেই যাচ্ছে সামাজিকভাবে। দেনমোহরের টাকা দিয়ে এত নাটক করার কী আছে? না দিতে পারলে তখনই মীমাংসার সময়ে বলতো আমরা দিতে পারব না।

কিন্তু তখন এই কথাগুলো বলেনি তার পরিবার!

শুধু আমাকে ছোট করার জন্যই সামাজিকভাবে এসব বলা এবং করা হচ্ছে।

অথচ মীমাংসার আপসনামায় স্পষ্ট করে লেখা আছে, কেউ কারও বিরুদ্ধে সামাজিকভাবে কোন হেয় প্রতিপন্নমূলক কথা একে অপরকে বলবো না এবং একে অপরের মামলা নিজ দায়িত্বে তুলে ফেলব।

বিয়ের পর আইনগতভাবে দেনমোহরের ভরণপোষণ, খোরপোষ এর টাকা প্রতিটা মেয়ের প্রাপ্য অধিকার এবং এটি অবশ্যই হালাল ইসলামিক শরীয়া মোতাবেক কারণ তার সঙ্গে আমার ভালোবেসে বিয়ে হয়েছিল। সংসার তো আমি শেষ অবধি করতে চেয়েছি। শুধু সংসার বাঁচানোর জন্য আমি তো তার মতো তাকে ছেড়ে কোথাও যাইনি।

আর আমি তাদের মতো কাউকে বলিও নাই আসেন আমার সঙ্গে মীমাংসা করেন এবং টাকা দিয়ে আমাকে উদ্ধার করেন!

আমি আর কোনো প্রকারের কাদা ছোড়াছুড়ি করতে চাই না। দুই পরিবারে সম্মানের দিকে তাকিয়েছি জন্যই মীমাংসা করেছি। আইনের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ও  আস্থা ছিল আছে এবং থাকবে। এবং আল্লাহ যা করেছেন মঙ্গলের জন্যই করেছেন।

সাংবাদিক ভাই ও বোনদের কাছে এতটুকুই বলতে চাই, বিয়ের পর আমাদের জীবনে সমস্যার তৈরি হয়েছিল তা আমরা পারিবারিক এবং আইনগতভাবে মিটিয়ে নিয়েছি। তাই একতরফা মনগড়া ভাইরাল হেডলাইন দিয়ে আর আমাদের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে নিউজ করে মানুষকে বিভ্রান্ত করবেন না।

নিজেরাও ভালো থাকুন আমাকেও ভালো থাকতে দিন।
ধন্যবাদ।

জিবাংলা টেলিভিশনের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন।

আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে ফলো করুন ফেসবুক গুগল প্লে স্টোর থেকে Gbangla Tv অ্যাপস ডাউনলোড করে উপভোগ করুন বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর