https://channelgbangla.com
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৪:০১ পূর্বাহ্ন

খুনের ২ মামলা ডিবিতে

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২২
10

ঢাকার নিউ মার্কেট এলাকায় ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গ্রেপ্তার ওই ব্যক্তি হলেন বিএনপি’র নিউ মার্কেট থানার সাবেক সভাপতি মকবুল হোসেন। গতকাল বিকালে তাকে তার ধানমণ্ডির বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর তাকে মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
গত মঙ্গলবারের ওই ঘটনার পর থেকে এখন পর্যন্ত চারটি মামলা হয়েছে নিউ মার্কেট থানায়। এরমধ্যে দুটি হত্যা মামলা। হত্যা মামলা দুটির তদন্তভার পেয়েছে ডিবি। ওপর দুটি মামলার মধ্যে রয়েছে ১টি বিস্ফোরকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ও আরেকটি দাঙ্গাহাঙ্গামা, জালাওপোড়াও এবং পুলিশের কাজে বাধা প্রদানের মামলা।

হত্যা মামলা দুটিতে বাদী হয়েছেন নিহতদের পরিবারের সদস্যরা। এরমধ্যে ডেলিভারিম্যান নাহিদ মিয়া হত্যা মামলার বাদী তার চাচা সাঈদ ও দোকান কর্মচারী মুরসালিন হত্যা মামলার বাদী তার ভাই নূর মোহাম্মদ। এ ছাড়া বিস্ফোরকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলার বাদী হয়েছেন নিউ মাকের্ট থানার এস আই মেহেদী হাসান ও দাঙ্গা-হাঙ্গামা, জ্বালাও-পোড়াও ও পুলিশের কাজে বাধা প্রদানের মামলার বাদী একই থানার পরিদর্শক ইয়ামিন কবির। এই মামলায় নিউ মার্কেট থানা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি এডভোকেট মকবুল হোসেনসহ ২৪ জনের নাম রয়েছে। বাকি সবক’টি মামলায় আসামি অজ্ঞাত রাখা হয়েছে।

নিউ মার্কেট থানা পুলিশ জানিয়েছে, নাহিদ মিয়া ও মুরসালিন হত্যা মামলা দুটির তদন্ত করবে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এরইমধ্যে নাহিদ হত্যা মামলার ডকেটসহ ডিবির কাছে হস্তান্তর করেছে নিউ মার্কেট থানা পুলিশ। আর মুরসালিন হত্যা মামলা হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। নিউ মার্কেট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ ম কাইয়ুম বলেন, গত বুধবার রাতে নাহিদ হত্যাকাণ্ডে তার চাচা সাঈদ যে হত্যা মামলা করেছেন তার ডকেটসহ ডিবির রমনা বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ছাড়া মুরসালিন নিহতের মামলাটিও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশনায় ডিবির কাছে হস্তান্তর হতে পারে। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত অনেককেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত আছে। কিছু আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। সেসব নিয়ে কাজ চলছে। সিসি ক্যামেরা ও অন্যান্য ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ চলছে। ওসি বলেন, মামলায় যাদের নাম এসেছে তাদের বিরুদ্ধে উস্কানির অভিযোগে আনা হয়েছে। তবে তারা কোনো রাজনৈতিক দলের কিনা তা মামলায় উল্লেখ নেই।
গোয়েন্দা পুলিশের রমনা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার আজিমুল হক মানবজমিনকে বলেন, একটি মামলার তদন্তভার আমাদের কাছে এসেছে। তবে তদন্তের বিষয়ে এখনি কিছু বলা যাবে না। আমরা সবকিছু মাথায় নিয়ে কাজ করছি। সকল ভিডিও ফুটেজ, ছবি সংগ্রহ করেছি। সুন্দর ও সুষ্ঠু একটি তদন্ত করবো এবং খুব তাড়াতাড়ি ডিটেকশন করতে পারবো।
শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষের একটি ভিডিও ও ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ওই ভিডিওতে দেখা যায় নিউ মার্কেটের নূরজাহান সুপার মার্কেটের সামনের ফুটপাথে নেভি ব্লু টি-শার্ট পরা এক যুবক পড়ে আছে। ওই যুবককে ধূসর টি-শার্ট ও কালো হেলমেট পরা এক যুবক ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাচ্ছে। লাল টি-শার্ট ও হেলমেট পরা আরেক যুবক তাকে বাধা দিতে যায়। কিছুক্ষণ পর তারা ফিরে যান ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থীদের পাশে। তবে নেভি ব্লু টি-শার্ট পরা যে যুবককে অমানবিকভাবে কোপানো হয়েছে তার পরিচয় জানা গেছে। সে হলো- ঘটনার দিন রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে মৃত্যুবরণ করা  নাহিদ মিয়া। সে ডাটাটেক কম্পিউটার নামে একটি প্রতিষ্ঠানের ডেলিভারিম্যান। হেলমেট পরা যুবকরা যাকে কুপিয়েছে সেটি যে নাহিদ তার সত্যতা জানিয়েছে নাহিদের বাবা নাদিম মিয়া ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একটি সূত্র। ঘটনার দিন সকালবেলা নাহিদ ডি-লিংক লেখা নেভি ব্লু কালারের টি-শার্ট পরে বাসা থেকে বের হয়েছিল। নাহিদকে যে স্থান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং ভিডিওতে যে স্থানে কোপানো হয়েছে দুটি স্থান একই। স্থানটি হলো ঢাকা কলেজের ঠিক বিপরীতে নূরজাহান সুপার মার্কেটের খান ফ্যাশন স্টোরের সামনের ফুটপাথ।
যেভাবে হামলার শিকার নাহিদ: গত মঙ্গলবার সকাল থেকে নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ী ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ শুরু হয়। পুলিশের অনুপস্থিতিতে কয়েক ঘণ্টা ধরেই দু’পক্ষ মারমুখী অবস্থানে ছিল। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ককটেল বিস্ফোরণ, ইটপাটকেল নিক্ষেপের প্রতিযোগিতা চলছিল। নিউ মার্কেট মোড় থেকে নীলক্ষেত মোড়ের দিকে ব্যবসায়ীদের অবস্থান ছিল। আর ঢাকা কলেজের সামনে থেকে শুরু করে তার বিপরীত দিকের নূরজাহান মার্কেট, গ্লোব সেন্টারসহ আশপাশের আরও কিছু স্থানজুড়ে শিক্ষার্থীদের অবস্থান ছিল। শিক্ষার্থী-ব্যবসায়ীদের হাতে দেশীয় অস্ত্র ছিল। অনেকের মাথায় হেলমেট ছিল। হেলমেট পরা কিছু যুবক লোহার রড, ছুরি ও লাঠি নিয়ে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের পাশে ছিলেন। ধাওয়া- পাল্টা ধাওয়ার একপর্যায়ে হঠাৎ শিক্ষার্থীরা ছুরি, রামদা ও লোহার রড হাতে নিয়ে নূরজাহান মার্কেটের ভেতরে একদল ব্যবসায়ীকে ধাওয়া করে। ধাওয়ার সময় নাহিদকে পেয়ে ওই যুবকরা পেটাতে থাকে। একপর্যায়ে নাহিদ মাটিতে পড়ে যায়। তখন কালো হেলমেট পরা ধূসর রঙ্গের টি-শার্ট পরা ওই যুবক নাহিদকে কোপাতে থাকে। আরেক যুবকের বাধা পেয়ে পরে তারা কলেজের দিকে চলে যায়।
তুচ্ছ বিষয় নিয়ে সংঘর্ষে শতাধিক ব্যবসায়ী-শিক্ষার্থী ও সাংবাদিক আহত হয়েছেন। এরমধ্যে নাহিদ ও মুরসালিনের মতো দুটি তাজা প্রাণও হারাতে হয়েছে। এমন নির্মম মৃত্যুতে তাদের পরিবারে যেমন শোকের ছায়া বইছে ঠিক তেমনি দেশের বিভিন্ন মানুষ শোক প্রকাশ করছেন। ইটের আঘাতে মুরসালিনের মৃত্যু হলেও নাহিদকে অমানবিকভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।
ঘটনা সবার সামনে, ব্যবস্থা নেয়া হবে: গতকাল দুপুরে রাজারবাগে বাংলাদেশ পুলিশ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে পুলিশের বার্ষিক আজান, কেরাত ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ শেষে পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, নিউ মার্কেটের সংঘর্ষের ঘটনা সবার সামনে ঘটেছে। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে। শুধু সিসিটিভি ফুটেজ নয়, প্রত্যেক সাংবাদিকের ক্যামেরায় ফুটেজ আছে। একটু ধৈর্য ধারণ করুন, পুলিশ তদন্ত করছে, নিশ্চয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, যারা এ ধরনের আচরণ করেছেন তারা যারাই হোন ভবিষ্যতে এ ধরনের আচরণ থেকে সতর্ক থাকবেন। সংঘর্ষে দুর্ঘটনা ঘটেছে, আইন লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেছে, প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। এসব বিষয়ে পুলিশের যেসব আইনগত ব্যবস্থা সেগুলো আমরা অবশ্যই দেখবো। নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ী ও ঢাকা কলজের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে আইজিপি বলেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ থেকে সবাইকে বিরত থাকার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। এ ধরনের ঘটনা সবারই পরিহার করা উচিত। এ ধরনের কাজ দেশ পরিপন্থি। দেশ ও দেশের বাইরে জাতি হিসেবে এ ধরনের ঘটনা যথাযথভাবে রেপুটেড করে না। সংঘর্ষের ঘটনায় করা মামলায় যাদের আসামি করা হয়েছে তাদেরকে রাজনৈতিক বিবেচনায় করা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে আইজিপি বলেন, এ বিষয় আমার জানা নেই। তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় সাংবাদিকসহ যারা হামলা ও অন্যায়ের শিকার হয়েছেন তাদের প্রত্যেকের জন্য আমাদের তরফ থেকে যা করা দরকার আমরা তার সবকিছু করবো।

জিবাংলা টেলিভিশনের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন।

আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে ফলো করুন ফেসবুক গুগল প্লে স্টোর থেকে Gbangla Tv অ্যাপস ডাউনলোড করে উপভোগ করুন বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর