January 18, 2022, 11:24 pm

লিভারপুলে হাসপাতালের সামনে ট্যাক্সি বিষ্ফোরণে একজন নিহত

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : সোমবার, নভেম্বর ১৫, ২০২১
  • 54 বার পঠিত

যুক্তরাজ্যের লিভারপুলের ওমেন্স হাসপাতালের বাইরে গাড়ি বিস্ফোরণে এক ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় দেশটির সন্ত্রাসবাদ আইনে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ট্যাক্সিটি রবিবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টার ঠিক আগে একজন যাত্রী তুলে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময়েই বিস্ফোরিত হয়। সে সময় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে অবদান রাখা সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাদের সম্মানে রবিবারের স্মরণানুষ্ঠানে জাতীয় দুই মিনিটের নীরবতা শুরু হওয়ার কথা ছিল। খবর বিবিসির।

গাড়িতে থাকা যাত্রীকে ঘটনাস্থলে মৃত ঘোষণা করা হয় এবং এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে তার পরিচয় জানা যায়নি। এ ঘটনায় পুরুষ ট্যাক্সি চালক আহত হয়েছেন। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন এবং তার অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গেছে।

গোয়েন্দা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, শহরের কেনসিংটন এলাকায় ২৯, ২৬ ও ২১ বছর বয়সী তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ বলছে যে, বিস্ফোরণের কারণ সম্পর্কে জানতে তারা এখন চোখ কান খোলা রেখেছে এবং তারা মার্সিসাইড পুলিশের সাথে কাজ করছে। এ ব্যাপারে তদন্ত তার নিজস্ব গতিতে চলছে। নিরাপত্তা বাহিনী, এমআইফাইভ এক্ষেত্রে সব ধরণের সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে।

সশস্ত্র কর্মকর্তারা সেফটন পার্কের কাছে রাটল্যান্ড অ্যাভিনিউ এবং কেনসিংটনের বোলার স্ট্রিটে অভিযান চালিয়েছে।

বিশেষজ্ঞ কর্মকর্তারা সেফটন পার্কের কাছে রাটল্যান্ড অ্যাভিনিউ এলাকায় অবস্থান করছে। এই অভিযানের সাথে বিস্ফোরণের যোগসূত্র আছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ওই স্থানটি এখন ঘেরাও করে রাখা হয়েছে এবং অনেক বাসিন্দাকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

ঘটনাস্থলে পুলিশের পাশাপাশি দমকলবাহিনী অবস্থান করছে।রাটল্যান্ড অ্যাভিনিউতে পুলিশ কর্মকর্তারা

রাটল্যান্ড অ্যাভিনিউতে পুলিশ কর্মকর্তারা

গাড়ি বিস্ফোরণ

কার্ল বেসান্ট, যার সঙ্গীর সবেমাত্র একটি সন্তান জন্ম হয়েছে, বিস্ফোরণের সময় তিনি হাসপাতালের ভেতরে ছিলেন।

“আমার সঙ্গী ভয়ে কেঁপে উঠেছিল,” তিনি বলেন।

“আমরা খুব কাছাকাছি ছিলাম এবং সে যখন আমাদের সন্তানকে দুধ খাওয়াচ্ছিল, তখনই বিস্ফোরণ ঘটে। আমরা একটা বিকট শব্দ শুনতে পেয়ে জানালার বাইরে তাকাই।

“আমরা দেখি যে গাড়িতে আগুন লেগেছে এবং কেউ লাফ দিয়ে বেরিয়ে আসছে… চিৎকার করছে, এবং গাড়ির ভেতরেও কেউ ছিলেন।

“হাসপাতালটি বন্ধ হয়ে গেছে, এর ভেতরে বা বাইরে কেউ নেই, তবে মানুষ পেছনের দরজা দিয়ে চলাচল করছে।”

প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন টুইটারে বলেছেন: “লিভারপুলের ভয়াবহ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত সকলের প্রতি আমি সমবেদনা জানাই।”

“এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নিয়ে পেশাদারিত্বের পরিচয় দেয়া জন্য জরুরি পরিষেবাগুলোকে এবং পুলিশকে তদন্ত চালিয়ে যাওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানাই।”

স্বরাষ্ট্র সচিব প্রীতি প্যাটেলও টুইট করেছেন যে তাকে “ভয়াবহ এই ঘটনার বিষয়ে নিয়মিত আপডেট রাখা হচ্ছে”।রাস্তায় সশস্ত্র বাহিনীও অবস্থান নেয়।

রাস্তায় সশস্ত্র বাহিনীও অবস্থান নেয়।

ঘটনাস্থল থেকে

জিম ক্লার্ক, উপ-সম্পাদক, বিবিসি নর্থ ওয়েস্ট টুনাইট

শহরের সেফটন পার্ক এলাকার রাটল্যান্ড অ্যাভিনিউতে স্থানীয় সময় বেলা একটার দিকে প্রথম অভিযানটি হয়। এটি হাসপাতাল থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে। এটি শহরের এমন একটি এলাকা যেখানে বড় বড় ভিক্টোরিয়ান বাড়ি রয়েছে।

যে বাড়িতে অভিযান চালানো হয়েছিল সেখানে কয়েকটি ফ্ল্যাট ছিল। স্থানীয় বাসিন্দারা বলেছেন যে তারা কয়েক সপ্তাহ ধরে ওই বাড়িটি থেকে কাউকে যাওয়া আসা করতে দেখেননি – তারা ভেবেছিল বাড়িটি খালি। বর্তমানে ওই রাস্তাটি ঘেরাও করে রাখা হয়েছে এবং কিছু বাসিন্দাকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

শহরের কেনসিংটন এলাকার বোয়ালের স্ট্রিটেও পুলিশকে দেখা গেছে। হাসপাতাল থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে।

রাস্তায় থাকা প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন যে সশস্ত্র বাহিনী বেলা ২টা নাগাদ ওই বাড়িতে অভিযান চালায়। তারা বলেছে যে তারা দুইজনকে গ্রেফতার করে হাতকড়া পরাতে দেখেছে। পরে সশস্ত্র কর্মকর্তারা ওই দুজনকে গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়। একটি গাড়িতে করে। সেই রাস্তাটিও বন্ধ রাখা হয়েছে।

মার্সিসাইড পুলিশের প্রধান কনস্টেবল সেরেনা কেনেডি সাধারণ মানুষকে আশ্বস্ত করার চেষ্টা করে বলেছেন, এ ধরণে ঘটনা খুব বিরল এবং সামনের দিনগুলোয় রাস্তায় পুলিশের উপস্থিতি বাড়ানো হবে।

একটি বোমা নিষ্ক্রিয়কারী ইউনিট এবং দমকলবাহিনীও ঘটনাস্থলে উপস্থিত আছে।

গাড়ি বিস্ফোরণের খবরে বেলা ১১টার দিকে পুলিশকে ডাকা হয়েছিল।পুলিশ, দমকল ও বোমা নিষ্ক্রিয়কারী কর্মীরা বিস্ফোরণের ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছে

পুলিশ, দমকল ও বোমা নিষ্ক্রিয়কারী কর্মীরা বিস্ফোরণের ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছে

মার্সিসাইড ফায়ার অ্যান্ড রেসকিউ সার্ভিসের প্রধান দমকল কর্মকর্তা ফিল গ্যারিগান বলেছেন, বেলা ১১টার কিছু পরেই দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে আসার পর দেখতে পায় গাড়ির আগুন পুরোপুরি ছড়িয়ে পড়েছে।

“দমকল কর্মীরা পরে দ্রুত আগুন নিভিয়ে ফেলে কিন্তু এতে একজনের মৃত্যু হয়েছে,” তিনি বলেন।

” আগুন পুরোপুরি ছড়িয়ে পড়ার আগেই গাড়িতে থাকা অপর ব্যক্তি দ্রুত বেরিয়ে আসতে পেরেছিলেন। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা।”

লিভারপুল ওমেন্স হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত দর্শনার্থীদের প্রবেশ সীমিত করা হয়েছে এবং রোগীদের যতোটা সম্ভব অন্য হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে।

প্রধান নির্বাহী ক্যাথরিন থমসন বলেছেন, “আমরা পরবর্তী ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার জন্য রোগীদের পরিস্থিতি পর্যালোচনা করছি এবং হাসপাতালের যেকোনো অ্যাপয়েন্টমেন্ট বা অন্যান্য বিষয়ে আপডেটের জন্য রোগীদের যোগাযোগ রাখতে বলা হয়েছে।”

লিভারপুল ওমেন্স হাসপাতালে প্রতিবছর প্রায় ৫০ হাজার রোগীকে সেবা দিয়ে থাকে এবং এটি ইউরোপের অন্যতম বড় বিশেষায়িত হাসপাতাল।

0Shares

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর