January 18, 2022, 10:10 pm

তেহরিক-ই-তালেবানের প্রতি সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করা হবে না

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শনিবার, নভেম্বর ১৩, ২০২১
  • 42 বার পঠিত

পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মুয়িদ ইউসুফ বলেছেন, নিষিদ্ধ ঘোষিত সন্ত্রাসী গোষ্ঠী তেহরিক-ই-তালেবান সদস্যদের প্রতি সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করার কোনো পরিকল্পনা ইসলামাবাদের নেই।পাকিস্তান সরকারের সঙ্গে তেহরিক-ই-তালেবানের আলোচনার খবর প্রকাশিত হওয়ার পর একথা জানালেন মুয়িদ ইউসুফ।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত তেহরিক-ই-তালেবান সদস্যদেরকে সাধারণ ক্ষমার আওতায় আনার সিদ্ধান্ত হয়নি এবং ইসলামাবাদ সরকার এ ব্যাপারে অত্যন্ত সতর্ক ও স্পর্শকাতর অবস্থানে রয়েছে।

গত ১৫ বছর ধরে তেহরিক-ই-তালোবানের মিলিশিয়ারা সব সময় ভারত ও সাবেক আফগান সরকারের নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর পৃষ্ঠপোষকতা পেয়ে এসেছে বলে দাবি করেন পাক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা। তিনি বলেন, পাকিস্তান বহুবার বিশ্ব সমাজকে একথা জানিয়েছে যে, পাক সেনা অভিযানের মুখে তেহরিক-ই-তালেবানের সন্ত্রাসীরা আফগানিস্তানে আশ্রয় নিয়েছে এবং তারা সেখান থেকে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে যাচ্ছে।

মুয়িদ ইউসুফ বলেন, ইসলামাবাদ সরকার এখন এই নিষিদ্ধ সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সঙ্গে সরাসরি আলোচনা করে নিরস্ত্র হওয়ার ব্যাপারে তাদের আন্তরিকতা যাচাই করে দেখতে চায়।তিনি দাবি করেণ, পরিসংখ্যান থেকে প্রমাণিত হয় সংলাপের মাধ্যমেই বেশিরভাগ সংঘাতের অবসান ঘটেছে। আলোচনায় সমাধান না হলে তেহরিক-ই-তালেবানের সঙ্গে যুদ্ধ চলতেই থাকবে।

পাকিস্তান সরকার গত সপ্তাহে তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের সঙ্গে অস্ত্রবিরতি চুক্তির খবর দেয়।কিন্তু পাকিস্তানের বিরোধীদলগুলো সরকারের এ ঘোষণার তীব্র বিরোধিতা করে বলেছে, পার্লামেন্টের অনুমতি ছাড়া নিষিদ্ধ ঘোষিত এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সঙ্গে আলোচনা বা চুক্তি করার অধিকার সরকারের নেই। পাকিস্তান সরকার তেহরিক-ই-তালেবানের সঙ্গে চুক্তির বিষয়বস্তু প্রকাশ না করলেও কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, ইসলামাবাদ যুদ্ধবিরতির বিনিময়ে এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর বহু সদস্যকে কারাগার থেকে মুক্তি দিতে সম্মত হয়েছে।

0Shares

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর