January 18, 2022, 10:24 pm

ওর মতো বোলারের কাছে এটা আশা করা যায় না : আফ্রিদি

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শনিবার, নভেম্বর ১৩, ২০২১
  • 55 বার পঠিত

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে পাকিস্তানের পরাজয়কে মাত্র চার শব্দে প্রকাশ করা যায়। ক্যাচ মিস, ছয়, ছয়, ছয়।

আর এই চার শব্দের ঘটনা দলটির মূল পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদির শেষ ওভারের।

বিষয়টি মানতে পারছেন না শাহিনের ‘শ্বশুর’ শহিদ আফ্রিদি।  পাকিস্তানের পরাজয়ে হবু জামাতাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন বুমবুম আফ্রিদি।

বৃহস্পতিবারের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের ১৪তম ওভার পর্যন্ত খেলা ছিল পাকিস্তানের পক্ষেই।
ফাইনালের টিকিট পাকিস্তানই কাটছে এমন ধারণা ছিলে সবার।

দুই ওভারে অস্ট্রেলিয়ার দরকার ছিল ২২ রান।  আর ১৯তম ওভারে শাহিন শাহ আফ্রিদি সেই প্রয়োজনীয় রান দিয়ে দেন!

এতে শাহিন শাহ আফ্রিদির উপর রেগে আগুন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক।

বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তানের বিদায়ের পরে পাক সংবাদমাধ্যম সামা টিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শহিদ আফ্রিদি বলেন, ‘আমি শাহিনের বলে খুশি নই। হাসান আলি ক্যাচ ছেড়েছে। তবে তার মানে এই নয় পরের তিন বলে তুমি তিনটি ছক্কা হজম করবে।’

এমন গুরুতত্বপূর্ণ ওভার করতে শাহিন মাথা খাটাননি বলে অভিযোগ আফ্রিদির।

বললেন, ‘শাহিনের এত গতি রয়েছে। ওর উচিত ছিল বুদ্ধি করে বল করা। অফ স্টাম্পের বাইরে ইয়র্কার বল করতে হত। ওর মতো বোলারের কাছে এটা আশা করা যায় না। মাথাটাই খাটাল না।’

হবু জামাতাকে এভাবে তুলোধোনা করে অবশ্য গোটা টুর্নামেন্টে তার অবদানকে অস্বীকার করেননি আফ্রিদি। বললেন, ‘পুরো টুর্নামেন্টে শাহিন দারুণ বল করেছে। আমি শুধু ওয়াসিম আকরাম বা মোহাম্মদ আমিরকে এমন বল করতে দেখেছি। আমি আশা করি এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আগামী দিনে শাহিন আরও ভাল বোলার হয়ে উঠবে।’

অর্থাৎ আফ্রিদির ক্ষোভ শাহিনের ওই এক ওভার নিয়ে।  সেখানে শাহিন বুদ্ধিদীপ্ত বল করলে ১২ বছর পর পাকিস্তান আবার ফাইনালের মঞ্চে চলে যেত বলে আফসোস শহিদ আফ্রিদির।

অমন ওভারের জন্য শাহিন অবশ্য তেমন একটা সমালোচনার শিকার হননি নিজ দেশে।  পাক সমর্থকদের ভাষ্য, শাহিন ঠিকই নিজের কাজটা করেছিলেন। তার বলে সীমানায় ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন ম্যাথু ওয়েড।  সেটি হাসান আলি লুফে নিলে পরের তিন বলে তিন ছক্কা হজম করতে হতো না।  ম্যাচভাগ্য অন্যরকমও হতে পারত।

0Shares

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর