লেকপাড় ও প্লট দখল করে অবৈধ মিনি পার্ক

  • বাংলাদেশ সময় : শনিবার, ৮ আগস্ট, ২০২০
  • ৯০ প্রিয় পাঠক, সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন

রূপগঞ্জ(নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে রাজউকের অধীনে থাকা পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পের একটি লেকপাড় ও ২৬টি প্লট স্থানীয় প্রভাবশালী কর্তৃক অবৈধ দখলের পর মিনি পার্ক গড়ে তোলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুধু তাই নয়, এ মিনি পার্কে প্রকাশ্যে মাদকসেবনসহ দিনদুপুরেই চলে অসামাজিক কাজ। এতে স্থানীয়রা বিরম্বনার শিকার হলেও প্রকাশ্যে মুখ খুলছেন না ভয়ে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের পূর্বাচল প্রকল্পের ১ ও ২ নং সেক্টরের মাঝামাঝিতে অবস্থিত একটি লেকপাড় ও ৭০ বিঘার অধিক জমির প্রায় ২৬টি প্লট অবৈধভাবে দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে মিনি পার্ক। আর তা দখলে রেখেছে বাড়িয়া ছনি এলাকার নিহত আবেদ আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম লিটন ও তার বাহীনি। তা নিয়ন্ত্রণ করছে তার ভাই কসাই সিরাজ ও ছেলে রানা , ভাতিজা সরফরাজের,যুবরাজ। এদের মাদক সরবরাহের অভিযোগে গত ২৩ জুলাই মাদকসহ আটক করে রূপগঞ্জ থানা পুলিশ।

সূত্র জানায়, রাজউকের উচ্ছেদ নজর এড়াতে সাইনবোর্ড বিহীন এ পার্কে দম্পতি, কতোপকপোতি ছাড়াও রাজধানী ও আশপাশের জেলা থেকে চিহ্নিত মাদকসেবীরা বেড়াতে আসে নিয়মিত। অভিযোগ রয়েছে তাদের মাঝে অবাধে মাদক সরবরাহ করে পার্কটির মালিক ও ম্যানেজার নিজেই। আর পার্কের নামে অবৈধ দখলকারীর বিরুদ্ধে রয়েছে হত্যাসহ বিভিন্ন গুরুতর অপরাধের ১৯টির বেশি মামলা। এছাড়া একাধিক বিয়ে করায় ১৯৮৫ সনে নিজ পিতাকে জবাই করে হত্যার অভিযোগও রয়েছে সিরাজ ও লিটনের বিরুদ্ধে। সে ঘটনায় মামলা চলমান না থাকায় নিষ্পত্তি হয়নি।

সূত্র আরো জানায়, এ পার্কটির ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব থাকা তোফাজ্জল মীর রূপগঞ্জের বাড়িয়া ছনি এলাকার মৃত কিসমতের ছেলে নবী হোসেন ঢালু হত্যা মামলার এজাহার ভুক্ত প্রধান আসামী। জামিনে থেকে এ পার্কটি পরিচালনা করছে সে। লিটন তার মাধ্যমে পূর্বাচলের কোনস্থানে প্লটের উন্নয়ন কাজ হলে প্রথমে কাজ চায়। না দিলে মোটা অংকের চাঁদাদাবী করে থাকে এবং ওই চাঁদা না দিলে হামলা, প্রাচীর ভাংচুরের ঘটনা ঘটায়। এমন এক ভুক্তভোগী রাজধানীর বাড্ডা এলাকার বাসিন্দা শরীফুল ইসলাম জানান, তাদের দাবীকৃত চাঁদা না দেয়ায় তার ক্রয়কৃত একটি জমিতে জোরপূর্বক প্রবেশ করে বসতঘর ভেঙ্গে দিয়েছে লিটনের বাহীনি। সে ঘটনায় থানায় ও নারায়ণগঞ্জ আদালতে পৃথক মামলা রয়েছে।

একইভাবে তাদের বিরুদ্ধে রাজধানীর বাড্ডার বাসিন্দা নাজিমউদ্দিন, গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া থানার আনোয়ারুজ্জামানের ছেলে আ.স.ম রকিবুজ্জামানসহ ৩০জনের অধিক ভুক্তভোগীর দায়ের করা প্রায় ১৯টির বেশি মামলাসহ মাদক, নারী নির্যাতন, ছিনতাই ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধে অভিযুক্ত হিসেবে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে ।
রাজউকের পূর্বাচল প্রকল্পের প্রকৌশল সহকারী হিসেবে দায়িত্বরত নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক কর্মচারী জানায়, বিগত ৫ মাস পূর্বে বাড়িয়া ছনির লিটনের ছেলে রানা বাহীনি কর্তৃক বউড়ার টেক এলাকায় পূর্বাচলের রাস্তার কাজ ও ১নং সেক্টরের একটি নির্মানাধীন প্লটে চাঁদা দাবীর করে।এসব বিষয়ে রাজউক অবগত হলে একাধিকবার তাদের গড়া অবৈধ পার্ক ভেঙ্গে দেয়। পরে আবার এ পার্কটি গড়ে তুলে লিটন ও তার বাহীনি।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত রফিকুল ইসলাম লিটনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, পূর্বাচলে এমন বহু রেস্টুরেন্ট করা হয়েছে। আমিও করেছি। কোন পার্ক গড়ে তুলিনি। অসামাজিক কাজ ও মাদকের সঙ্গে আমার পরিবার জড়িত নয়। আর আমার বিরুদ্ধে মামলাগুলো জমি সংক্রান্ত ও রাজনৈতিক বেশি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজউক‘র পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পের পরিচালক(পিডি) উজ্জল মল্লিক মুঠোফোনে এই প্রতিবেদককে জানান,পূর্বাচলের বিভিন্নস্থানে অবৈধ দখলদার রয়েছে। তাদের বিভিন্ন সময় উচ্ছেদ করা হয়েছে। পার্ক বিষয়ে জেনেছি তাই রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাধ্যমে খুব শীঘ্রই অবৈধ দখলদারদের পুনরায় উচ্ছেদ করা হবে।
এসব বিষয়ে রূপগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, পূর্বাচলের রিসোর্ট বা পার্ক নামে অবৈধ ও অস্থায়ী প্রতিষ্ঠানে কি হচ্ছে তা জানতে থানা পুলিশ সজাগ রয়েছে। কোন প্রকার বেআইনি কাজ সংঘটিত হবার অভিযোগ বা খোঁজ পেলে তড়িৎ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার ফেসবুকে শেয়ার করে জিবাংলার সাথেই থাকুন

জিবাংলা টেলিভিশনের অন্যান্য সংবাদ

বেক্সিমকো ঢাকার মতো তারকাখচিত দল জেমকন খুলনাও পাত্তা পেল না গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের কাছে।

চট্টগ্রামের তারকা বোলার মোস্তাফিজের কাছে ধরাশায়ী হয়েছেন সাকিব-মাহমুদউল্লাহরা।

জেমকন খুলনা ৯ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিল গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম।

এ জয়ের মূল নায়ক মোস্তাফিজুর রহমান। ৩.৪ ওভার বল করে মাত্র ৫ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪ উইকেট।

গত দুই ম্যাচে খুলনার সফলতম ব্যাটসম্যান আরিফুলসহ শামীম, রিশাদ ও আলআমিনকে কম রানেই সাজঘরে ফিরিয়েছেন মোস্তাফিজ।

তবে খুলনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দুটি উইকেট নিয়েছেন নাহিদুল ইসলাম। সাকিবকে মাত্র ৩ রানে ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহকে মাত্র ১ রানে ফেরান নাহিদুল।

চট্টগ্রামের এই দাপুটে বোলিংয়ে ১৭.৫ ওভারে ৮৬ রানেই গুটিয়ে যায় জেমকন খুলনার ইনিংস।

৮৭ রানের মামুলি টার্গেটে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম।

যেই উইকেটে খুলনার ব্যাটসম্যানরা হাত খুলে মারতেই পারেনি, সেই উইকেটেই রানের বন্যা বইয়ে দিচ্ছেন চট্টগ্রামের ওপেনার লিটন দাস ও সৌম্য সরকার।

আল আমিন, শামীম ও হাসান মাহমুদদের তুলোধুনো করে ৪৬ বলে ৫৩ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন ওপেনার লিটন দাস।

অন্যদিকে কিছুটা মন্থর গতিতে ২৯ বলে ২৬ রানের ইনিংস খেলেন আরেক ওপেনার সৌম্য সরকার।

জেমকন খুলনার পক্ষে একমাত্র সাফল্য সৌম্যের উইকেট। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর হাতে ধরা দেন তিনি।

সৌম্য ফিরে গেলে মুমিনুল হল ৭ বলে ৫ রান করলে মাত্র ১৩.৪ ওভারে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় চট্টগ্রাম।

এর আগে টস জিতে নিয়মিত ওপেনার ইমরুল কায়েসকে তিনে পাঠিয়ে ওপেনিংয়ে নামেন সাকিব।

গত দুই ম্যাচের মতো আজকেও ইনিংস বড় করতে পারেননি সাকিব।

শুরুতেই ভুল বোঝাবুঝিতে রানআউট হন ৬ বলে ৬ রান করা বিজয়। ৭ বলে মাত্র ৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন সাকিবও।

নাহিদুল ইসলামের বোলিংয়ে মিড অন ও লং অনের মাঝামাঝি জায়গায় দাঁড়িয়ে থাকা মোসাদ্দেক সৈকতের ক্যাচে পরিণত হন সাকিব।

সাকিবের পর পরই মাত্র ১ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও। মাত্র ২ টেকেন তিনি। তাকে লেগবিফোরের ফাঁদে ফেলেন নাহিদুল।

দলের হাল ধরার চেষ্টা করে তিনে নামা ইমরুল কায়েস। ২৬ বলে ২১ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।
অন্যদিকে তাকে সঙ্গ দেয়া জহুরুল অমি ১৪ বলে ১৪ রান করে আউট হন।

আজ আরিফুল হকও বেশি দূর যেতে পারেননি। একপ্রান্ত আগলে রেখে ৩০ বল টিকে থাকলেও রান করেছেন মাত্র ১৫ ।

ইনিংসের ১৮তম ওভারে নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে মোস্তাফিজের তৃতীয় শিকারে পরিণত হন আরিফুল। এরপর বোলার আলআমিনকেও দ্রুতই ফিরিয়ে দেন মোস্তাফিজ।

১৭.৫ ওভারে ৮৬ রান করতেই থেমে যায় জেমকন খুলনার ইনিংস।

চট্টগ্রামের পক্ষে বল হাতে ৪ ওভারে মাত্র ১৫ রান খরচায় ২ উইকেট নেন নাহিদুল।

তাইজুলও ২টি উইকেট পেয়েছেন। তবে সবাইকে ছাড়িয়ে গেছেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ। মাত্র ৫ রান দিয়ে মোস্তাফিজ নিয়েছেন ৪ উইকেট।

লিটন-সৌম্যর ব্যাটে উড়ে গেল চট্টগ্রাম

Close